June 13, 2016 12:55 pm A- A A+

পঞ্চগড়ে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসির আদেশ

পঞ্চগড় প্রতিনিধি : পঞ্চগড়ে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত।

সোমবার (১৩ জুন) পঞ্চগড় জেলা ও দায়রা জজ এবং নারী ও শিশু ট্রাইব্যুনালের বিচারক এম এ নূর এই রায় দেন। একই সঙ্গে তাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির নাম নিমাই চন্দ্র রায় (৩১)। তিনি জেলার আটোয়ারী উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের বারো আউলিয়া গ্রামের অনিল চন্দ্র রায়ের ছেলে।

এ সময় নির্দোষ প্রমাণিত হওয়ায় নিমাইয়ের বাবা অনিল চন্দ্র, মা রমা বালা, বোন বিউটি রানীকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার সোনাহার গ্রামের করুনা কান্ত রায়ের কন্যা সোনালী রানী শম্পার (২৪) সঙ্গে ২০০৮ সালের ১৩ আগস্ট নিমাই চন্দ্র রায়ের বিয়ে হয়। বিয়ের পর যৌতুকের দাবিতে প্রায়ই শম্পাকে নির্যাতন করা হতো। ২০১২ সালের ১২ নভেম্বর একই কারণে তাকে নির্যাতন করা হয়। এক পর্যায়ে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করার পর গলায় রশি দিয়ে একটি আম গাছে ঝুঁলিয়ে রাখে।

এ ঘটনায় ১৩ নভেম্বর শম্পার বাবা করুনা কান্ত রায় বাদী হয়ে আটোয়ারী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়িসহ ৬ জনের নামে মামলা দায়ের করেন।

আটোয়ারী থানার এসআই ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা দিলীপ কুমার রায় ২০১৩ সালের ২৫ মার্চ নিমাই চন্দ্র রায়সহ ৪ জনের নামে আদালতে অভিযোগ (চার্জশিট) দাখিল করেন।

আদালত ৯ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করে।

রাষ্ট্রপক্ষে আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আমিনুর রহমান ও অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম মামলাটি পরিচালনা করেন।

শম্পার বাবা করুনা কান্ত রায় আদালতের রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

পিপি অ্যাডভোকেট আমিনুর রহমান বলেন, ‘আদালত মৃত্যু নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রাখার নির্দেশ দেন।’

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 249 বার