October 2, 2017 6:23 pm A- A A+

জনপ্রিয়তায় সংগঠনের অলরাউন্ডার শিরীন বিএনপি’র প্রার্থী হবার সম্ভাবনা সিটি নির্বাচনে

বাণী ডেস্ক
এম.এস.আই লিমনঃ
আসন্ন বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মনোনীত প্রার্থীর জনপ্রিয়তার সাথে সাথে সাংগঠনিক কর্মদক্ষতাসম্পূর্ণ ব্যক্তিকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হবে। সিটি নির্বাচনকে ঘিরে বরিশাল বিএনপির কয়েক নেতা ইতোমধ্যে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ সহ দলের চেয়ারপার্সন বরাবর তাদের নির্বাচন করার ইচ্ছে প্রসন করলেও দল থেকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না দেয়া হলেও আভাস পাওয়া যাচ্ছে বরিশালে নারী নেত্রীর নাম। কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরীনকে বরিশাল বিএনপির বৃহৎ একটি অংশ বরিশাল সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় মনোনীত প্রার্থী হিসেবে দেখতে চেয়ে প্রস্তাবনা রেখেছে বলে জানা গেছে। বরিশাল বিএনপির সিনিয়র একাধীক নেতাকর্মীরা জানায়, সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরীন দলের দূঃসময়ে হামলা মামলার স্বীকার হওয়া সহ কর্মীদের বিপদে ঝাপিয়ে পরার দলের প্রতি অবদান রয়েছে তার। কর্মীবান্ধব ও দলের দূঃসময়ের কান্ডারী এ নারী নেত্রী বরিশাল বিএনপি’র নেতা কর্মী সহ বরিশাল বাসী অগ্নিকন্যা ক্ষ্যাতী প্রদান করে তার ত্যাগের পাল্লা প্রাপ্তির তুলনায় ভাড়ী হওয়ায়। বরিশাল সিটি কলেজে অধ্যাপিকা হিসেবে শিক্ষকতাও করেছে প্রায় ৮ বছর। জাতীয়তাবাদী বিএনপি সংগঠনের পিছনে এই নারী নেত্রীর অবদানের কথা কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দদের মনে গেথে থাকায় সংগঠন তাকে গুরু দায়িত্ব কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক করে দলের অবস্থান ফিরিয়ে আনার প্রত্যয়ে। বিএনপি দলের অঙ্গসংগঠন নেতৃবৃন্দরা ক্ষমতার গদিতে না থাকায় বরিশালে অধিকাংশ নেতারাই ক্ষমতায় নেই বলে পাশ কাটিয়ে গেলেও শিরীনের কর্মীবান্ধবতার ধারা অব্যাহত রেখেই নেতা কর্মীদের বিপদে পাশে গিয়ে দাড়িয়ে বরিশাল বিএনপি সহ সুশিল সমাজেও স্থান করে নিয়েছে তার জনপ্রিয়তা। আসছে আগামী সিটি নির্বাচনে যেমন বড় ধরনের পরিক্ষার সম্মুখীন হতে হবে বিএনপি সংগঠনের নির্বাচনের অংশ নেয়া প্রার্থীদের কেননা ব্যক্তি ইমেইজের সাথে সাথে জড়িয়ে আছে সংগঠনের ভবিষ্যৎ। ধারনা করা যাচ্ছে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে অনুষ্ঠিত হবে সিটি নির্বাচন। আর সিটি নির্বাচনের জয় পরাজয়ই অনেকাংশে প্রভাব ফেলবে জাতীয় সাংসদ নির্বাচনে। ফলে সাংগঠনিক কর্মদক্ষতা সম্পূর্ণ জনপ্রিয়তা কর্মীবান্ধব নির্বাচনের ময়দানেরর ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীর সাথে নির্বাচনী লড়াইড়ে জয়ী হবার মত অলরাউন্ডার ব্যাক্তিকেই বিএনপি দলীয় মনোনীয় প্রার্থী করা হচ্ছে বলেও জানা গেছে। কেন্দ্রীয় এবং স্থানীয় পর্যায়ের নেতাকর্মী সহ বরিশাল সিটির ভোটারদের মূখ থেকে উঠে ভেসে বেরাচ্ছে কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরীনের নাম। ইতোমধ্যে বরিশাল ৩০ ওয়ার্ডেই শিরীরের পক্ষে প্রচার প্রচারনা শুরু হওয়ায় জনমনে গুঞ্জন উঠেছে বিএনপি’র মনোনয়ন শিরীন পাচ্ছে। জানা গেছে,২০১৩ সালের ১৫ জুন অনুষ্ঠিত সিটি নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাবেক মেয়র প্রয়াত শওকত হোসেন হিরণকে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হয় বিএনপি সমর্থিত আহসান হাবিব কামাল। সে অনুযায়ী আগামী বছরের মাঝামাঝি বরিশাল সিটি নির্বাচন হতে পারে বলে জেলা নির্বাচন অফিসের ধারনা।বরিশাল বিএম কলেজ ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম-আহবায়ক সাইফুল ইসলাম শাহীন বলেন, দলীয় হাই কমান্ডের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। নারী নেত্রী হিসেবে বিএনপি সংগঠনের প্রথম সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরীন। তিনি বরিশাল নগরী থেকে ছাত্র রাজনীতি থেকে শুরু করে সাংগঠনিক কর্মদক্ষতা এবং দলীয় দূঃসময়ে হামলা মামলার স্বীকার হওয়ায় সংগঠন তাকে কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক করে।কর্মীবান্ধব হিসেবে তার নাম রাজনৈতিক অঙ্গনে রয়েছে শীর্ষ স্থানে। দলীয় কোন্দল কিংবা ভেদাভেদ ভুলে তিনি নেতাকর্মীদের বিপদে ঝাপিয়ে পরে। এ পর্যন্ত আন্দোলন করতে ষড়যন্ত্র হামলা মামলার স্বরীকার হয়েছেন বহুবার। তৃনমূল নেতাকর্মীরা এবং বরিশাল বাসী তাকে বরিশালের মেয়র প্রার্থী হিসেবে দেখতে চাচ্ছে তার কর্মদক্ষতাগুনে। তিনি দলীয় মনোনীত প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহন করলে জয়ী হবার সম্ভাবনা রয়েছে অনেকাংশই। সংগঠন যেমন শক্তিশালী ঐক্যবদ্ধ হবে ভেদাভেদ কোন্দল ভুলে সাংগঠনিক ভাবে তেমনি নগরউন্নয়নও হবে বরিশালকে উন্নত নগরীতে পরিনত হয়ে তিনি মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহন করলে।বরিশাল জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক, হাফিজ উদ্দীন বাবলু বলেন, বরিশাল বিএনপির অভিবাবক কেন্দ্রীয় বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডঃমজিবর রহমান সরোয়ার নির্বাচনে না আসলে ছাত্ররাজনীতী থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরীন ও জেলা দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি এবায়দুল হক চাঁন এদের মধ্যেই দলীয় মনোনয়ন পাবার সম্ভাবনা। দলীয় সিদ্ধান্তনুযায়ী তারা সাংগঠনিক ভাবে তাদের দিকনির্দেশনা মেনে মনোনীত প্রার্থীকে জয়ী করতে সর্বাত্মক প্রচারপ্রচারনা করবে। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তনুযী বরিশাল বিএনপির অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দরা তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করবে। অপর দিকে কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরীন জানায়, দলের চেয়ারপার্সন সহ দিকনির্দেশকরা যে সিদ্ধান্ত নিবে সে সিদ্ধান্তনুযায়ী কার্যক্রমপরিচালনা করবে। সংগঠন যাকে যোগ্য হিসেবে মনে করবে তাকেই মনোনয়ন দিবে। সংগঠনকে শক্তিশালী করতে দলের অবস্থান ফিরিয়ে আনতে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধকরে সংগঠন গতিশীল করতে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি ধারাবাহিক ভাবে। নগর উন্নয়ন দিয়ে সংগঠনের ইমেইজ গড়ার সাথে সাথে সাধারন জনগনের দোরগোড়ায় তাদের কাঙ্খিত সেবা পৌছে দেবে দল যাকে সিদ্ধান্ত দেবে বলেও জানান তিনি। নির্বাচনের তফসিল ঘোষনার পূর্বে কোন ধরনের ব্যক্তিগত মতামত দিতে রাজি নন কেন্দ্রীয় বিএনপির এ সাংগঠনিক সম্পাদক। জেলা (দক্ষিন) বিএনপির সভাপতি এবায়দুল হক চান বলেন, সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষনার আগে এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি নন তিনি।এদিকে বরিশাল বিএনপি’র অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী সহ সাধারন জনগন দলের হাই কমান্ডের সিদ্ধান্তর অপেক্ষায় রয়েছে কাকে দেয়া হবে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের দলীয় মনোনয়ন আসন্ন নির্বাচনে।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 1566 বার