January 10, 2018 7:29 pm A- A A+

বরিশালে পার্কের টয়লেটের মধ্যে আপত্তিকর অবস্থায় প্রেমিক যুগল আটক!

বাণী ডেস্কঃ

কথায় আছে প্রেম মানে না কোন বাঁধা আর প্রেম মানে না জাত কুল। প্রেমের ফসল ফলাতে এবার মুক্তিযোদ্ধা পার্কের টয়লেট ব্যবহার করলেন বরিশাল বিএম কলেজের ছাত্র এবং একই কলেজের তার প্রেমিকা। শীতের হিমেল বাতাস আর এজন্যই বরিশাল নগরীর মুক্তিযোদ্ধা পার্কে কমে গেছে দর্শনার্থী। তবে এমন সুযোগকে কাজে লাগাতে গিয়ে মহাবিপাকে পড়লেন দুই শিক্ষার্থী। সকলের অগোচরে একটু প্রেম ভালবাসা করতেই টয়লেটকে নিরাপদ স্থান বেচে নেয় এই প্রেমিক যুগল ঝুটি। কেউ তাদের ডিস্টাব করবে আর কেউ তাদের সন্দেহ করবে না। কিন্তু ঘটনার ঠিক কিছু সময় পরেই বে-রসিক জনতা জরো হলো সেই পাবলিক টয়লেটের সামনে।জনতার টের পেয়ে আরো দীর্ঘ সময় চলে তাদের প্রেম নিবেদন। উত্তেজিত জনতা যখন টয়লেটের দরজা ধরে ধাক্কা দেয় তখনেই ছেলেটি বলে উঠলো কি হয়েছে বের হচ্ছি। সেখান থেকে দরজা খুললো প্রেমিক রায়হান কিন্তু ভিতরেই রয়ে গেলো তার প্রেমিকা। যখনেই উত্তেজিত জনতা ক্ষেপে উঠলো তখনেই তেলে বেগুনে জলে এগিয়ে আসলো প্রেমিকা। তিনি এসেই সবাইকে হতবাক করে বলেন কি হয়েছে। আমরা এখানে কোন খারাপ কাজ করি নাই। আপনাদের সমস্যা কি। মেয়েটি জনতার উপর চড়াও হয়েই হঠাৎ একজনকে ডাকলো। আটকের পর নাটকীয় ভাবে এসে পরে আটকৃতদের বড় ভাই নামক জনৈক ব্যক্তি। তিনি এসে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে চাইলে উত্তেজিত জনতা তাকেও পাকরাও করে।উত্তেজিত জনতার ভির দেখে ঘটনাস্থলে হাজির হন স্থানীয় আ’লীগ নেতা কর্মীরা। তারা অভিভাবকের ন্যায় ছেলে মেয়ে দুটিকে এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দেন। তবে ঘটনাটি নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা পার্কের দক্ষিন পাশ অর্থাৎ কোস্টাল বরফকল এলাকাজুড়ে চাঞ্চল্যকর পরিস্তিতির সৃস্টি হয়। স্থানীয় সুত্র জানায় বরিশাল বি এম কলেজের অনার্স ৩য় বর্ষের ছাত্র রায়হান তার প্রেমিকাকে নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা পার্কের দক্ষিণ পাশের পাবলিক টয়লেটের মধ্যে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে স্থানীয় জনতা। সে সময় ঘটনাস্থলে গিয়ে ছেলে মেয়েটিকে তাদের সহপাঠিদের কাছে দিয়ে দেয় স্থানীয়রা।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 629 বার