March 1, 2018 8:34 pm A- A A+

২৬ বছর ধরে মহসিনের পেটে সুঁই-সুতা-গজ-টিস্যু!

অণ-লাইন ডেস্কঃ

নিজের পেটে ২৬ বছর ধরে সুঁই,সুতা,গজ ও টিস্যু নিয়ে জীবনযাপন করছেন বলে জানালেন চাঁদপুরের মো.মহসিন গাজী।বুধবার জেলার ফরিদগঞ্জ প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন একথা জানান তিনি।তার বাড়ি চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের নলডুগী গ্রামে।মহসিন গাজী জানান,১৯৮৭ সালের ৮ জানুয়ারি সৌদি আরবে যান তিনি।১৯৯২ সালে দার আল হাসনা আহম্মদ আল গাতানির অধীনে কর্মরত থাকার সময় তার পেট ব্যথা ওঠে। আবহা জেলার‘আছির হাসপাতালে’ভর্তি হন তিনি। কর্তব্যরত ডাক্তার অ্যাপেন্ডিসাইটিসের অপারেশন করান। তখন তার পেটের ভেতর সুঁই,সুতা,গজ,টিস্যু রেখেই সেলাই করা হয়।পুরোপুরি সুস্থ হওয়ার জন্য আবারও ওই হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি।এবারও তার পেটের ভেতর গজ,টিস্যু পেটে রেখেই সেলাই করা হয়।তিনি জানান,সুচিকিৎসা না পেয়ে সৌদি আইনে ক্ষতিপূরণ মামলা করেন মহসিন।ওই মামলায় ভুল চিকিৎসায় জড়িতদেরকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ২ লাখ সৌদি রিয়াল পরিশোধের নির্দেশ দেয়া হয়।তবে ক্ষতিপূরণ ছাড়াই দেশে ফেরেন তিনি।পরে ক্ষতিপূরণের জন্য ঢাকায় সৌদি দূতাবাসে যোগাযোগ করেন।তখন দূতাবাস পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতিসাপেক্ষে সহযোগিতা করবে বলে আশ্বস্ত করে।যতবেশী সেই আশ্বাস আর পূরণ হয়নি।
তিনি আরও জানান,তিনি মেডিকেল রিপোর্ট ও মামলার সব কাগজপত্র ২০১৬ সালের ২৩ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়,প্রবাসী কল্যাণ এবং বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে জমা দেন।ওই বছরের ১৫ নভেম্বর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়েও সেগুলো জমা দেন।কিন্তু এ পর্যন্ত কোনো সাড়া পাননি।সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত মহসিনের স্ত্রী সেলিনা আক্তার এবং পরিবারের সদস্যরা।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 240 বার