April 28, 2018 4:39 pm A- A A+

চরকাউয়া ইউনিয়নে ট্যাংকলরী চালকের হাত ভেঙে দিলো প্রতিপক্ষ

অনলাইন ডেস্ক:

বরিশাল সদর উপজেলার চরকাউয়া ইউনিয়নের চরআইচা গ্রামে পূর্ব শত্রুতা ও পাওনা টাকা চাওয়ায় ট্যাংকলরীর এক চালককে পেটানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।চরআইচা গ্রামের বাসিন্দা মাসুম তালুকদার ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা পিটিয়েছেন বলে অভিযোগ আহতর পরিবারের। আহত টিটু মিয়া ঐ এলাকার লাল মিয়ার পুত্র।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,চরআইচা গ্রামের বাসিন্দা টিটুর সাথে মাসুম তালুকদারেরর পূর্বশত্রুতা ছিল।স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ বিরোধ মিমাংশার জন্য একাধিকবার শালিস বৈঠকও করেন। কিন্তু শালিসীব্যবস্থার সিদ্ধান্ত ক্ষনিকের জন্য মেনে নিলেও,পরবর্তীকালে আবার শত্রুভাবাপন্ন সম্পর্ক তৈরী হয়।যার ধারাবাহিকতায় গত বুধবার রাতে তাকে প্রকাশ্যে
পেটানো হয়।হামলায় আহত টিটুকে বুধবার রাতেই বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেন, টিটুর মাথায় জখম হয়েছে ও বা হাত ভেঙে গেছে। চরআইচা গ্রামের বাসিন্দা সোমেদ তালুকদারে পুত্র মাসুম তালুকদার,রুহুল আমিন,রাসেল,সোহাগসহ ৩/৪ জন এ হামলা চালায়।অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে এর আগে এলাকার অনেককে প্রকাশ্যে পেটানোর অভিযোগ রয়েছে।গতকাল শ্রক্রবার (২৭ এপ্রিল) দুপুরে হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে, টিটুর মাথায় ও বা হাতে ব্যান্ডেজ করা হয়েছে। নড়াচড়া করতে পারছেননা।ব্যথায় কাতরাচ্ছেন।টিটু বলেন,এর আগে সোমেদ তালুকদারের কাছে পাওনা টাকা চাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। বুধবার(২৫ এপ্রিল)রাতে মাসুমের নির্দেশে টিটুকে পেটানো হয়।তাকে টেনেহিঁচড়ে এনে রাস্তার ওপরে ফেলে রাখা হয়।এসময় মাসুম বুকের উপর পা দিয়ে চেপে ধরেন। এরপর মাসুমের সাঙ্গপাঙ্গরা প্রায় আধা ঘন্টা ধরে তাকে পেটান।অনেক লোক এ দৃশ্য দেখছিলেন।কিন্তু ভয়ে কেউ এগিয়ে আসেননি।পরে স্থানিয় বাসিন্দা ও পরিবারের সদস্যরা তাদেরকে উদ্ধার করেন।এ প্রতিবেদকের সঙ্গে কথা বলার সময় কেঁদে ফেলেন টিটু।তিনি বলেন,একজন সাধারন মানুষ হয়ে বেঁচে থাকার এই পরিণাম।মাসুম গংদের কাছে আজ জিম্মি আমি ও আমার পরিবারের সদস্যরা।কথায় কথায় পরিবারের সদস্যদের মারধর করেন। এব্যাপারে মাসুম তালুকদারের সঙ্গে কথা বলার জন্য তার বাসায় গেলে তার দেখা মেলেনি।এবিষয়ে কথা বলার জন্য বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জের ব্যবহৃত মুঠোফোনে কল করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 209 বার