May 4, 2018 9:56 pm A- A A+

কালের বিবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে বায়োস্কোপ

বাণী ডেস্ক :

যদিও কিছু মানুষের কারণে এখনও পুরোপুরি হারায়নি বায়োস্কোপ।তাদেরই একজন পাবনার জলিল মন্ডল।৪০ বছর ধরে টিকিয়ে রেখেছেন এই ঐতিহ্য যা এখনও মুগ্ধ হয়ে উপভোগ করে শিশু-কিশোররা।একহাতে খঞ্জনি, অন্য হাতে লাল-সবুজ বাক্সের হাতল সাথে ছবির সাথে মিল রেখে গানে গানে বর্ণনা।লোকজ এই ঐতিহ্যের নাম বায়োস্কোপ। যা হারিয়ে যেতে বসেছে।তবে ৪০ বছর ধরে এই ঐতিহ্য ধরে রেখেছেন রাজশাহীর জলিল মণ্ডল।কাঠের বাক্সের সামনে লাগানো আয়নায় দেখানো হচ্ছে বাংলার ইতিহাস,মুক্তিযুদ্ধ ও সমাজ সংস্কৃতির নানা বিষয়।যা মুগ্ধ হয়ে উপভোগ করে শিশু কিশোররা।বায়োস্কোপকে এক সময় বলা হতো গ্রাম বাংলার সিনেমা হল।যেকোনো মেলা,উৎসব পার্বণে দেখা মিলতো এর।কিন্তু বর্তমান প্রজন্মের কাছে অনেকটাই অচেনা এই যন্ত্র।আকাশ সংস্কৃতির দাপট আর ইন্টারনেটের যুগে এখন কোণঠাসা বায়োস্কোপ।লোকজ এই ঐতিহ্য ধরে রাখতে সরকারকে উদ্যোগ নেয়ার আহবান গবেষকদের।ইতিহাস বলছে,১৮৯৮ সালে বঙ্গদেশে প্রথম বায়োস্কোপ দেখান হীরা লাল সেন নামে এক বাঙালি।পরবর্তীতে যিনি নির্মাণ করেন উপমহাদেশের প্রথম চলচ্চিত্র।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 115 বার