May 8, 2018 8:50 pm A- A A+

বরিশালে লম্পট কর্তৃক বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এস.এস.সি পরীক্ষার্থীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ:ধর্ষক গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্কঃ

বরিশালের উজিরপুরে লম্পট কর্তৃক বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এস.এস.সি পরীক্ষার্থীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।এ ঘটনায় ভিকটিমের মাতা রানু বেগম বাদী হয়ে উজিরপুর মডেল থানায় ৮মে মঙ্গলবার অভিযুক্ত ধর্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।মামলা ও ভিকটিম সুত্রে জানা যায় উপজেলার বামরাইল ইউনিয়নের কালিহাতা গ্রামের আক্তার হোসেন হাওলাদারের মেয়ে ফাহিমাআক্তাট (১৬)কে উপজেলার সিমান্তবর্তী গৌরনদি উপজেলার শাহাজিরা গ্রামের শামিম আহম্মদ শেখের লম্পট ছেলে শেখ সোলায়মান(১৯) মোবাইল ফোনে বিভিন্ন ভাবে ফুসলিয়ে ঐ ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলেছে এবং বিভিন্ন সময় কূ-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল।এরেই ধারাবাহিকতায় গত ৭ই মে সোমবার রাত সাড়ে ৪টায় লম্পট সোলায়মান ছাত্রীর ঘরে ঢুকে সরলতার সুযোগ নিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে ধর্ষন করে।এরপর ছাত্রী বিয়ের কথা বললেই লম্পট নানা তালবাহানা শুরু করে।লম্পটের কূ-মতলব বুঝতে পেরে ছাত্রী ডাকচিৎকার করলে টের পেয়ে ধর্ষক সোলায়মানকে ছাত্রীর পিতা ও মাতা মিলে ধরে ফেলে স্থানীয়দের সহযোগীতায় প্রশাসনের কাছে সোপর্দ করে।৮মে মঙ্গলবার বেলা ১২ টায় উজিরপুর মডেল থানার এস.আই আলমগীর হোসেন,এ.এস.আই জাহাঙ্গির ঘটনাস্থল থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করে এবং ধর্ষককে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়।ধর্ষিতার মাতা বাদী রানু বেগম জানান,আমরা গরীব অসহায় হওয়ায় ঐ প্রভাবশালী লম্পট আমার মেয়েকে ফুঁসলিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষন করে।এমনকি ইতিপূর্বে আমার নাবালিকা মেয়েকে ফুঁসলিয়ে অন্য এলাকায় নিয়ে ৫দিন আত্মগোপনে রাখে।এ ব্যাপারে উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্য শিশির কুমার পাল জানান মামলা হয়েছে।ইতিমধ্যে ধর্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে।তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 180 বার