May 11, 2018 6:37 pm A- A A+

আনসার বাহিনীর নেতৃত্বে বরিশালে জমি দখল!

বানী ডেস্কঃ

বরিশালে আনসার বাহিনীর নেতৃত্বে রাতের আঁধারে ব্যক্তি মালিকানাধীন জমি দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে।নগরের সিএন্ডবি রোডের কাজিপাড়া এলাকায় বৃহস্পতিবার দিনগত গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে।সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর ঘটনাটিকে ‘প্রশ্নবিদ্ধ’ বলে দাবী করেছেন।২২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শহীদুল ইসলাম তালুকদার বলেন,ওই জমি নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিল।আমার জানা মতে,ক্রয় সূত্রে জমির মালিক আমিনুল ইসলাম মুন্সী।সেখানে আনসার সদস্যদের অবস্থান উচিত না।এ বিষয়ে বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আওলাদ হোসেন মামুন জানান,জমি দখলের কথা আমরা শুনেছি।জমিটি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল।বিরোধীয় জমিতে কোন বাহিনীর নামে ঘর নির্মাণ হতাশজনক।এই কর্মকর্তা আরও বলেন,খালি জায়গায় বাহিনীর নামে ঘর নির্মাণের কোন বিধান আছে বলে আমার জানা নেই।স্থানীয়ভাবে আমি জানতে পেরেছি,ঘটনার পরপরই ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।প্রতক্ষ্যদর্শী ও স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা গেছে,‘বিরোধীয় জমির নিরাপত্তা’র স্বার্থে অস্থায়ী টং ঘর নির্মাণ করে রাতে সেখানে অবস্থান নেয় কিছু আনসার সদস্য টিন দিয়ে অস্থায়ী নিরাপত্তা ঘর নির্মাণ করে সেখানে আনসার সদস্যরা সশস্ত্র অবস্থান নিয়েছে।জানা গেছে,নগরীর বগুড়া আলেকান্দা মৌজার জে.এল নং ৫০,খতিয়ান নং- ১৪৯৪,১৪৯৫,৩৮৫৬,৩৮৫৭ দাগ এস.এ- ৪০৪,১১০২ বি.এস-২৫৩২,ডিপি- ১১৩৫২ এর ১ একর ১২ শতাংশ জমি ২০১১,১২ ও ১৩ সালের বিভিন্ন সময় স্থানীয় মৃত মোসা:আনোয়ারা বেগমের ওয়ারিশ মো. হাবিবুর রহমান মল্লিক গংদের কাছ থেকে ক্রয় করেন একই এলাকার পশ্চিম বগুড়া রোডের বাসিন্দা এসাহাক মুন্সীর ছেলে আমিনুল ইসলাম মুন্সী।পরবর্তীতে ২০১৭ সালের ৪ ডিসেম্বর স্থানীয় কাজী মাহাতাব হোসেন জমির মালিকানা দাবি করে বরিশাল অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দুই ভাই কাজী মাহাতাব হোসেন ও কাজী আলতাফ হোসেন পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন।আদালত ওই মামলা দুটির সরেজমিন তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ প্রদান করা হলে উভয় মামলার তদন্ত কর্মকর্তার প্রতিবেদন বিবাদী আমিনুল ইসলাম মুন্সীর পক্ষে যায়।খোঁজ-খবর নিয়ে জানা গেছে,আদালতের রায়ের বিষয়টি বাদীরা উপেক্ষা করে শক্তি প্রয়োগ করে জমি দখলের পায়তারায় করে আসছিল।পরবর্তীতে তার অপর ভাই আনসার ভিডিপির রংপুর জেলা কমান্ড্যান্ট কাজী শাখাওয়াত হোসেন টুলুর প্রভাব খাটিয়ে বরিশাল আনসার ক্যাম্পের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সহায়তায় ১০ সদস্যের আনসার টিম নিয়ে জমি দখল করে।এ বিষয়ে আনসার ভিডিপির উপজেলা অফিসার আফজাল হোসেন জানান,স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে আমরা এখানে অবস্থান নিয়েছি।যেখানে অবস্থান নিয়ে ঘর নির্মাণ করেছেন তা সরকারি জমি কিনা জানতে চাইলে তিনি আল হাদী ট্রেডিং নামক প্রতিষ্ঠানের আবেদন দেখান।সেখানে অবস্থানের বিষয়ে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর বরিশাল জেলা কমান্ড্যান্টের কার্যালয় থেকে গত ১০ মে করা এক অফিস আদেশ দেখানো হয়।আদেশে উল্লেখ আছে,সৈনিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এবং ক্যাম্পের মান-সমুন্নত রাখার স্বার্থে বরিশাল জেলার বিভিন্ন উপজেলার নিম্ন বর্ণিত সংস্থার ১০ জন অঙ্গীভুত আনসার সদস্যকে বদলী করে আনসার ক্যাম্পে বদলী করা হলো।এদিকে অফিস আদেশে আনসার ক্যাম্পে বদলী লেখা হলেও আনসার সদস্যরা জানান,ওই জমির নিরাপত্তায় তাদের নিয়োজিত করা হয়েছে।জমির মালিক আমিনুল ইসলাম মুন্সী জানান,এ জমি আমার ক্রয়কৃত।বিবাদী পক্ষ জমি দখল দিতে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করলেও আদালতের রায় আমার পক্ষে আসে।তারা আদালতের রায়কে উপেক্ষা করে আনসারের ক্ষমতা ব্যবহার করে জোরপূর্বক জমি দখলে নিয়েছে।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 131 বার