May 15, 2018 7:27 pm A- A A+

ভোলায় ঘুমন্ত অবস্থায় ২ বোনের উপর এসিড নিক্ষেপ

বানী ডেস্ক :

ভোলায় গভীর রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় দুই বোনকে এসিড দিয়ে ঝলসে দেয়া হয়েছে।এতের তাদের মুখ মন্ডল,চোখসহ শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে গেছে।গুরুতর অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।এ ঘটনায় পুলিশ ২ জনকে আটক করলেও মূল অীভযুক্ত রাজিবকে এখনো গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।ঘটনাটি ঘটে সোমবার গভির রাতে ভোলা সদর উপজেলার উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নে খুশিয়া গ্রামের রাড়ি বাড়িতে।আহতদের স্বজনরা জানান,হেলাল রাড়ির ৩ কন্যা।এর মধ্যে তানজিম আক্তার মালা (১৬) এবং মারজিয়া (৮) গতকাল খাবার খেয়ে রাত ৯ টায় দুই বোন এক সাথে ঘুমাতে যায়।রাত ২ টার পর দিকে অপর এক ছোট বোন মাহিকে প্রকৃতির ডাকে টয়লেট করাতে ঘরের বাইরে নিয়ে যায়।এ সুযোগে ঘরের দরজা খোলা পেয়ে হঠাৎ করে অজ্ঞাত দুবৃত্ত এসিড নিক্ষেপ করে।এতে তানজিম আক্তার মালার মুখমন্ডল,২ চোখসহ শরীরের বিভিন্ন স্থান ঝলসে যায়।এছাড়াও তার ছোট বোন দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী মারজিয়া হাত ও পেটসহ বিভিন্ন স্থান ঝলসে যায়।তবে ঘরের বাইরে থেকে না ভিতর ঢুকে এসিড নিক্ষেপ করা হয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।এ সময় তাদের ডাক চিৎকার শুনে পরিবারের সদস্যরা গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে রাতেই ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।তাদের পরিস্থিতি অবনতি হওয়ায় তাদেরকে মঙ্গলবার দুপুরে ভোলা থেকে বরিশাল প্রেরণ করা হয়েছে।স্বজনরা আরো জানান,মেধাবি ছাত্রী তানজিম আক্তার মালা এ বছর উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের গজারিয়া গ্রামের আবদুল মান্নান মাধ্যমিক বিদ্যালল থেকে এবছর এ গ্রেড পেয়ে উর্ত্তীন হয়।আহত ছাত্রীর পরিবার জানান,তাদের একই বাড়ির ছাত্রী রাজিব প্রেম প্রস্তাব দিলে তা প্রত্যাক্ষান করলে মোবাইলে উত্ত্যাক্ত করে আসছিলো।আহত ছাত্রী ধারনা করছে,বখাটে যুবক রাজিব এসিড নিক্ষেপ করেছে।এদিকে আহত মেয়েকে উদ্ধার করতে গিয়ে তাদের মায়ের হাতে এসিড লেগে ঝলসে যায়।ভোলা সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার আর এম তৈয়বুর রহমান জানান,আহত তানজিমের বাম চোখের অবস্থা গুরুতর।তাকে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।এদিকে ভোলা পুলিশ সুপার মো: মোকতার হোসেন সাংবাদিকদের জানান,এ ঘটনায় সকালে ইউসুব ও রাজিবের পিতাকে পুলিশ আটক করেছে।এছাড়া মুল আসামী রাজিবকে ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 36 বার