May 18, 2018 8:24 pm A- A A+

বাবা করেছেন পাকিস্তানি আবর্জনা সাফ আর ছেলে করছেন দেশের ময়লা আবর্জনা সাফ!

অনলাইন ডেস্কঃ

মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিনের ছোট ছেলে শওকত আলী পাটোয়ারীর দিন কাটছে চরম অবহেলা আর দারিদ্র্যের মধ্যে।জীবন যুদ্ধে হেরে কখনো চায়ের দোকানের পানি টেনে,কখনো বা করাত কলে কাজ করে দিনাতিপাত করছেন তিনি।এ ছাড়া এলাকাবাসীর সহায়তায় বেঁচে আছে তার পরিবারের সদস্যরা।বাবা ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ সন্তান হলেও ছোট ছেলে শওকত আজ দিনভিখারি! কখনো খেয়ে,কখনো না খেয়ে দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাচ্ছেন।কষ্টের এখানেই শেষ নয়।মানসিক ও শারীরিকভাবে অক্ষম শওকতের পরিবারে রয়েছে স্ত্রী রাবেয়া আক্তার (৩৩) ও ১০ বছরের শিশুকন্যা আমেনা আক্তার বৃষ্টি।বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার বাগপাচড়া গ্রামে ১৯৩৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন।দুই ছেলে তিন মেয়ের মধ্যে বড় ছেলে মো:বাহার ১৪ বছর আগে মারা যান।পাঁচ ভাইবোনের মধ্যে শওকত সবার ছোট।বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন যখন শহীদ হন,তখন শওকতের বয়স দুই বছর।তিন বোন ঢাকা ও চট্টগ্রামে বসবাস করলেও ৪০ বছর বয়সি শওকত বাস করেন বাবার জীর্ণ ভিটায়।শওকত জানান,বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকম কাজ করে কোনো রকমে সংসার চালান।তিনি বলেন,বাবা বীরদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ হয়েছেন,সেই গর্বে সব দুঃখ,কষ্ট ভুলে থাকি।অর্থকষ্টের কারণে মংলা বন্দরে গিয়ে বাবার সমাধিটিও দেখার সৌভাগ্য হয়নি বলেই কেঁদে ফেলেন শওকত।শওকতের স্ত্রী রাবেয়া বলেন,বিয়ের পর থেকে আমার আত্মীয়-স্বজনের সাহায্য দিয়ে সংসার চলতো।কিন্তু,আত্মীয়-স্বজনরা কী সব সময় দেখে?আমার কত আশা ছিল স্বামী-সংসার নিয়ে সুখে থাকবো।হতাশ কণ্ঠে রাবেয়া আরো বলেন,মেয়েকে পড়াশুনা শিখিয়ে বড় করবো,কিছুই হলো না।মেয়ে মানুষের স্বামীই সব।তার(শওকত) বোনদের স্বামীরা কাজ করতে পারে।তাই ভালো আছে।আর আমি আজকে মানুষের কাছ থেকে চেয়ে চেয়ে খাই।এ ঈদেও নিজেরা কোরবানি দিতে পারিনি।পাড়ার লোকজন যখন দুই-তিন টুকরা গোসত হাতে করে দিয়ে যান তখন কষ্টে বুক ফেটে যায়।তিনি অভিযোগ করেন,সরকারি সাহায্যও সেভাবে তাঁদের কাছে পৌঁছে না।দিনে ১৫০-২০০টাকা ইনকাম করে একবেলা খেয়ে আরেক বেলা না খেয়ে কোন রকমে চলছে তার সংসার।শারীরিক ও মানসিকভাবে অসুস্থ বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিনের ছেলে শওকত আলী পাটোয়ারী ও তার পরিবারকে কেউ আর্থিকভাবে সহযোগিতা করতে চাইলে নিচের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা দিতে পারেন।মো: শওকত আলী,অগ্রণী ব্যাংক,সোনাইমুড়ী শাখা,নোয়াখালী।অ্যাকাউন্ট নং-৩৪০৭২০০৬।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 458 বার