June 5, 2018 7:29 pm A- A A+

বরিশালে লাল নিশানা উপড়ে ফেলে খাল দখল করে পাকা স্থাপনা নির্মাণ

বানী ডেস্কঃ

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার পর সরকারী কর্মকর্তাদের দেয়া লাল নিশানা উপরে ফেলে খাল দখল করে পাকা স্থাপনা নির্মাণ কাজ ফের শুরু করা হয়েছে।এ ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।ঘটনাটি জেলার গৌরনদী উপজেলার মাহিলাড়া বাজারের।স্থানীয়রা জানান,গত কয়েক মাস পূর্বে মাহিলাড়া বাজার থেকে মাহিলাড়া-জয়শুরকাঠী খালের প্রবেশমুখ ভরাট করে পাকা স্থাপনা নির্মাণ কাজ শুরু করে আগৈলঝাড়া উপজেলার সেরাল গ্রামের বাসিন্দা জাকির সেরনিয়াবাত।খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার,উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সরেজমিন পরিদর্শন করে খালের সীমানা নির্ধারণ করে লাল নিশানা উড়িয়ে দেয়।এরপর সরকারী কর্মকর্তাদের দেয়া লাল নিশানা উপেক্ষা পুনরায় কাজ শুরু করে জাকির সেরনিয়াবাত।পরবর্তীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার,সহকারী কমিশনার (ভূমি) বন্ধ খালকে সচল রাখার জন্য অবৈধ স্থাপনা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়।সরেজমিনে দেখা গেছে,দীর্ঘ দুইমাস কাজ বন্ধ থাকার পর সরকারী কর্মকর্তাদের দেয়া লাল নিশানা উপেক্ষা করে ফের খাল দখল করে ফাউন্ডেশন দিয়ে দ্রুতভাবে নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন প্রভাবশালী জাকির সেরনিয়াবাত।সূত্রমতে,গত বছর বিএডিসির অর্থায়নে মাহিলাড়া-ভীমেরপাড়ের এক কিলোমিটার মরা খাল পূনঃখনন করে খালে পানির প্রবাহ ফিরিয়ে আনা হয়।ওই খালের ওপর নির্ভরশীল মাহিলাড়া ও ভীমেরপাড় এলাকার সহস্রাধিক কৃষক।খাল খননের একবছর যেতে না যেতেই পুনরায় জনগুরুত্বপূর্ন খালটি দখলদারদের কবলে পরেছে।এ ব্যাপারে জাকির সেরনিয়াবাতের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,উপজেলা প্রশাসন ক্ষমতার প্রভাবে মালিকানা সম্পত্তির নির্মানাধীন স্থাপনা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছিলো।উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ মিজানুর রহমান জানান,পুনরায় স্থাপনা নির্মানের বিষয়টি আমার জানা নেই,তবে খোঁজ খবর নিয়ে এবার আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 60 বার