July 29, 2018 7:38 pm A- A A+

বরিশালে প্রধানমন্ত্রীর শাসন চলে না:সরোয়ার

বানী ডেস্কঃ

প্রধানমন্ত্রী সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা বললেও বরিশালে তার কথা শোনার লোক নেই বলে দাবি করেছেন বিএনপির প্রার্থী মজিবুর রহমান সরোয়ার।তার দাবি,বরিশাল নিয়ন্ত্রণ করে ‘অন্য কেউ’।ভোটের আগের দিন বিকালে নগরে নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করে এই অভিযোগ তুলে সরোয়ার বলেন,বরিশালে সুষ্ঠু ভোটের পরিবেশ নেই।ধানের শীষের প্রার্থীরা বলেন,‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা।কিন্তু আমার তো মনে হয় না বরিশালে প্রধানমন্ত্রীর শাসন চলছে না।’‘এখানে কেউ তার কথা শুনছে না আছে।মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি খোজ নিন। পরিস্থিতি দেখুন।প্রশাসনের অপকৌশল থামান।’সোমবার রাজশাহী ও সিলেটের মতো ভোট হবে বরিশালেও।তিন মহানগরেই ২০১৩ সালে বিএনপি জিতলেও এবার জনমত আওয়ামী লীগের পক্ষে বলে জরিপ করে জানতে পেরেছেন প্রধানমন্ত্রীর পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়।এর আগে ১৫ মে খুলনা এবং ২৬ জুন গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বড় পরাজয় হয় বিএনপির।তবে দলটির দাবি,তাদেরকে জোর করে হারানো হয়েছে।আর তিন সিটি নির্বাচনেও আগের মতোই প্রশাসন ও পুলিশের বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগের কথাই বলে যাচ্ছে দলটি। সরোয়ার বলেন,‘আমরা অধিকারহীন অবস্থায় নির্বাচন করছি।সুষ্ঠু ভোটের পরিবেশ নেই।নির্বাচন কমিশনকে বার বার বলেছি কিন্তু তারা আমলে নেয়নি।হাইকোর্টের আদেশের পরও গ্রেপ্তার হচ্ছে।বিভিন্ন বাড়িতে হানা দিয়ে বিএনপির নেতা কর্মীকে গ্রেপ্তার করছে।’‘আওয়ামী লীগের প্রার্থী মিছিল করে,সমাবেশ করে অথচ আমাদের গণসংযোগও করতে পারে না।গতকাল কাউনিয়ায় আমাদের ৭/৮ জন নেতা কর্মীকে কুপিয়েছে।’বরিশালে বিভিন্ন জেলা উপজেলার লোক এসে ভরে গেছে অভিযোগ করে সরোয়ার বলেন,‘বহিরাগতরা থাকলে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না।তারা ডিস্টার্ব করবে ভোটে।রাত ১২টার মধ্যে তাদের নিরাপত্তা দিয়ে বের করে দিতে হবে।’সুষ্ঠু নির্বাচন হলে জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী সরোয়ার।বলেন,‘বরিশালে বিএনপি বারবার নির্বাচনে জয় লাভ করেছে।অন্য কেউ জিততে পারেনি।’পরিবেশ যাই হোক না কেন,শেষ পর্যন্ত ভোটে থাকার ঘোষণাও দেন বিএনপির প্রার্থী।বলেন,‘যে কোনো পরিস্থিতি হোক’সোমবার মাঠে থাকব।হামলা মামলা,নির্যাতন যাই হোক,মাঠ ছাড়ব না।আগামীতেও মাঠে থাকবে বিএনপি।’ ‘বিএনপি জনগণকে সঙ্গে নিয়ে ভোট কারচুপি ও গনতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে লড়াই করবে’-বলেন বরিশাল সিটি করপোরেশনের দুই বারের নির্বাচিত মেয়র।সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন,ওবায়দুল হক চাঁন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 75 বার