August 2, 2018 6:29 pm A- A A+

বরিশালের ৭ নারী কাউন্সিলর প্রার্থীর দাবি

বাণী ডেস্কঃ

বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সংরক্ষিত-৬ (১৬, ১৭ ও ১৮) আসনের স্থগিত দুটি কেন্দ্রে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন ৮ জন নারী কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে ৭ জন।ভোট কেন্দ্র দুটি হলো বরিশাল সরকারি মহিলা কলেজ ও সিটি কলেজ কেন্দ্র।শুধুমাত্র ‘তথাকথিত’ বিজয়ী প্রার্থী গায়েত্রী সরকার ছাড়া অপর সব প্রার্থীই পুনরায় নির্বাচনের দাবীতে নির্বাচন কমিশনের কাছে লিখিত আবেদন জানিয়েছেন।তারা বলছেন,এই দুই কেন্দ্রে পুনরায় সুষ্ঠু ভোট হলে নির্বাচনের ফলাফল পাল্টে যাবে এবং ভোটের আসল চিত্র বেরিয়ে আসবে।সূত্র জানায়,গত ৩০ জুলাই অনুষ্ঠিত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১৬,১৭ ও ১৮ নম্বর ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত সংরক্ষিত-০৬ আসনে মোট আটজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।এই তিনটি ওয়ার্ডের ৭টি ভোটকেন্দ্রে অস্বাভাবিক ভোট পান আওয়ামী লীগ সমর্থিত ও বই প্রতীকের কাউন্সিলর প্রার্থী গায়েত্রী সরকার।যিনি নির্বাচনের মাঠে তেমন কোনো আলোচনায় ছিলেন না,তিনি তার নিজের এলাকায় যেখানে অনেক কম ভোট পেয়েছেন,সেখানে অন্য ওয়ার্ডে মাত্রারিক্ত ভোট পাওয়ায় বিষয়টিকে ‘অস্বাভাবিক’ বলছেন প্রতিদ্বন্ধী অপর সকল প্রার্থী।তারা বলছেন,বিভিন্ন কেন্দ্রে বই প্রতীকের পক্ষে প্রকাশ্যে ব্যালট পেপারে সিল মারা হয়েছে,বিষয়টি আমরা সরাসরি দেখেছি ও প্রতিবাদ জানিয়েছি।আনারস প্রতীকের প্রার্থী মারিয়া ইসলাম মুন্নী বলেন,‘হালিমা খাতুন বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটের দিন বর্তমান কাউন্সিলর ও আওয়ামী লীগ নেতা মোশারেফ আলী খান বাদশা ও তার ছেলের নেতৃত্বে বই এবং বেহালা প্রতীকের পক্ষে প্রকাশ্যে সিল দেয়া হয়েছে।ভোটের ব্যালটের মুড়ির ধারাবাহিকতা পরীক্ষা করা হলে এই অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যাবে।ভোটের দিন বিষয়টি দেখতে পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে প্রতিবাদ করায় আমাকে ওই কেন্দ্রে লাঞ্ছিত করা হয়েছে’।আমি হালিমা খাতুন ভোটকেন্দ্র সহ স্থগিত হওয়া অপর দুটি কেন্দ্রে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি জানিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।সবকটি কেন্দ্রে ভোটের ফলাফলে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা জিপগাড়ি প্রতীকের প্রার্থী মজিদা বোরহান বলেন,প্রায় সবকটি কেন্দ্রেই বই প্রতীকের পক্ষে ব্যালট পেপারে প্রকাশ্যে সিল পেটানো হয়েছে।বিষয়টি অবহিত হয়ে নির্বাচন কমিশন মাত্র দুটি কেন্দ্রের ফলাফল স্থগিত করেছেন।আমরা এই স্থগিত দুটি কেন্দ্রে পুনরায় সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণের জন্য দাবি জানিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে লিখিত আবেদন জানিয়েছি।আমরা আশা করি নির্বাচন কমিশন আমাদের আবেদনে সাড়া দিয়ে অধিকাংশ প্রার্থী ও ভোটারের প্রাণের এই দাবি মেনে নেবেন।ভোটের ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা যায়,সংরক্ষিত-৬ আসনের এই তিনটি ওয়ার্ডের ৭টি কেন্দ্রে ২,০৯৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে প্রথম হয়েছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী বই প্রতীকের গায়েত্রী সরকার।আর ১,৮৮৮ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় হয়েছেন জীপ গাড়ি প্রতীকের প্রার্থী মজিদা বোরহান।তৃতীয় হয়েছেন বেহালা প্রতীকের প্রার্থী হোসনেয়ারা বেগম,তিনি পেয়েছেন ১,৬৬২ ভোট।স্থগিত হওয়া কেন্দ্র দুটি জিপ গাড়ি প্রতীকের প্রার্থী ও সাবেক কাউন্সিলর মজিদা বোরহানের নিজের এলাকায় হওয়ায় তিনি মনে করছেন এই দুটি কেন্দ্রে পুনরায় ভোট হলে তিনি ভোটের পরিসংখ্যানে এগিয়ে থাকবেন এবং বিজয়ী হবেন।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 14 বার