August 3, 2018 7:53 pm A- A A+

বরিশালে শোকাবহ মাসে বিএনপির কাউন্সিলরের শরীরে মুজিব কোর্ট:যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার ঝড়!

বানী ডেস্কঃ

বরিশালে বিএনপির এক কাউন্সিলরের শরীরে মুজিব কোর্ট পড়িয়ে দেয়া নিয়ে যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার ঝড় বইছে।কেউ কেউ মন্তব্য করছে শোকাবহ মাসে বিএনপির নেতার গায়ে মুজিব কোর্ট পড়ানোর বিষয়টি জাতির পিতাকে অবমাননা করা হয়েছে।গত ২ আগষ্ট বরিশালের এ্যাড.মারিফ আহমেদ বাপ্পীর ফেইসবুক আইডি থেকে বিষয়টি বিভিন্নভাবে প্রচার হলে এ নিন্দা ও সমালোচনা তুখোড় হতে থাকে।মারিফ আহমেদ তার আইডিতে উল্লেখ করেন,মুজিব কোর্টের এ অপমান শোকের মাসে আরেক শোক।এ কার গায়ে আজ মুজিব কোর্ট?মেয়র মহোদয় আপনি তার পরিচয় ও যোগ্যতা জানুন তারপর বলুন এ কোট তার গায়ে মানানসই কিনা?মহানগর আ.লীগ আপনার পরিশ্রমে গড়া।বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে সমর্থন করে আ.লীগ করি।ওতো আদর্শ কি তাই জানেনা।যে বিএনপি জানেনা সে কিসের বিএনপি নেতা?সরোয়ারকে টাকা দিয়ে সদস্যপদ নিয়েছিলো।টাকা থাকলে নেতা হওয়া যায়,কাউন্সিলর হওয়া যায় কিন্তু মুজিব কোর্ট পড়া যায়না।আওয়ামী লীগ কেন করবে সে কারন কি?সুবিধাবাদী লোক দলে নেয়া কি প্রয়োজন?তারপরেও যোগ দিলো ভালো কথা তার জন্য মুজিব কোর্ট পড়বে মানতে পারছিনা।ওর গায়ে মুজিব কোর্ট এতে বঙ্গবন্ধুকে অপমান করা হলো শোকাবহ মাসে।আদর্শ দল আওয়ামী লীগ।এ কোন পথে হাটছি আমরা?মেয়র দৃষ্টি দিন।গত নির্বাচনে চরমোনাইয়ের হুজুরকে দিয়ে ভোটারকে ভোট চেয়েছে।জিতে সরোয়ার ও খালেদা জিয়াকে ফুল দিয়েছে,এখন আ.লীগে তার প্রবেশ।আমার জানা নেই মেয়র যোগদান ও মুজিব কোর্ট পড়ানোর বিষয়টা জানেন কিনা।মেয়র,দল আপনাকেই গোছাতে হবে।সব লোক আসতে চাইলেই দলে নেয়া ঠিক হবেনা।তার এই পোষ্টটি ভাইরাল হওয়ার সাথে সাথে বিভিন্ন আইডি থেকে ৭৪টি লাইক ও ৩৪টি কমেন্টস করা হয়।তার ঐ পোষ্টসহ ছবিতে দেখা যায় মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এ্যাড.একেএম জাহাঙ্গীর হোসেন ২৭নং ওয়ার্ড বিএনপিপন্থী কাউন্সিলর নুরুল ইসলামকে শরীরে কোট পড়িয়ে বোতাম আটকিয়ে দিচ্ছেন।তার পাশে ছিলেন সহসভাপতি এ্যাড.আফজালুল করিম।সূত্র অনুযায়ী জানা যায়,সম্প্রতি নব নির্বাচিত মেয়র সেরনিয়াবাত সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধুর মাজার জিয়ারত করতে যান।সেখানে যাবার পূর্বের এক মূহুর্তে আ.লীগের দলীয় কার্যালয়ে কাউন্সিলর নুরুল ইসলামকে মুজিব কোর্ট পড়িয়ে দিচ্ছেন ঐ নেতা।এই ছবিসহ মন্তব্য লেখাটি ফেসবুক অনলাইনে পোষ্ট করে মারিফ আহম্মেদ বাপ্পী।এদিকে সূত্রটি আরো জানায় গত ২০১৩ সালে মোরগ মার্কার প্রতিক নিয়ে বিএনপির ২৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নির্বাচিত হন মোঃনুরুল ইসলাম।এরপর ২য় দফা এবং সদ্য সমাপ্ত ৩য় দফায় একই ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত হয় নুরুল ইসলাম।আগামী সেপ্টেম্বর মাসে তার আ.লীগে যোগদানের কথা রয়েছে।এ ব্যাপারে মহানগর আ.লীগের সভাপতি স্থানীয় এক সাংবাদিককে জানিয়েছেন,বিএনপি নেতার যোগদানের বিষয়টি তিনি জানেনা।তবে মুজিব কোর্টের অবমাননার বিষয় তিনি বলেন,খেয়াল দৃষ্টির অভাবে এমনটি হচ্ছে।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 202 বার