August 5, 2018 8:06 pm A- A A+

খসরুর সঙ্গে ফোনালাপে থাকা নওমি আটক তার বাবাকেও জিজ্ঞাসাবাদ

অনলাইন ডেস্কঃ

বিএনপির কেন্দ্রীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর সঙ্গে ফোনালাপে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উসকে দেওয়ার অভিযোগে কুমিল্লা থেকে ব্যারিস্টার মিলহানুর রহমান নাওমীকে আটক করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।গতকাল রবিবার সকালে জেলার বরুড়া উপজেলার দেওড়া গ্রামের তার ফুফুর বাড়ি থেকে তাকে তুলে নেওয়া হয়।তবে বিকাল পর্যন্ত নাওমীকে কোথায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে তা পরিবারের সদস্যরা জানেন না।ডিবি পুলিশের দায়িত্বশীল কোনো কর্মকর্তা নাওমীকে আটকের কথা স্বীকার করেননি।একটি সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।নাওমী লন্ডনে ব্যারিস্টারি পাস করে দেশে ফিরে হাইকোর্টে শিক্ষানবীস হিসেবে আইন পেশায় জড়িত এবং তিনি কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ২০নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও উনাইসার গ্রামের ছিদ্দিকুর রহমান সুরুজের ছেলে।এ দিকে ছেলেকে তুলে নেওয়ার বিষয়ে সাংবাদিকদের কাছে বক্তব্য দেওয়ার পর বেলা সোয়া ১২টার দিকে পুলিশ নাওমীর বাবা ছিদ্দিকুর রহমান সুরুজকে আটক করে জেলা ডিবি কার্যালয়ে নিয়ে যায়।সন্ধ্যা পর্যন্ত তিনি সেখানেই ছিলেন।
জানা যায়,নিরাপদ সড়ক দাবিতে শিক্ষার্থীদের উসকে দেওয়ার বিষয়ে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর সঙ্গে একজনের অডিও ফোনালাপ ভাইরাল হয়ে দেশজুড়ে ব্যাপক বিতর্কের সৃষ্টি করেছে।অডিও ক্লিপটি আন্দোলনের সপ্তম দিন গত শনিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। ওই অডিওতে নাওমীকে ঢাকায় আন্দোলনে সক্রিয় হতে বলেন আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে নাশকতায় উসকানি ও রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগে শনিবার রাতে চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালি থানায় মামলা দায়ের করেন নগর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর।এরপর রবিবার সকালে কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার দেওড়া গ্রাম থেকে ডিবি পুলিশ ব্যারিস্টার মিলহানুর রহমান নাওমীকে তুলে নিয়ে যায়।গতকাল সকাল ১০টার দিকে নাওমীর বাবা ছিদ্দিকুর রহমান সুরুজ তার বাড়িতে সাংবাদিকদের বলেন,আজ (রবিবার) ভোর রাতে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে নাওমীর খোঁজে তার উনাইসারের বাড়িতে তল্লাশী চালানো হয়।এখানে তারা তাকে বাড়িতে পাননি।এ সময় তারা নাওমীর মামা মনজুরুল ইসলাম ও চাচা ফরিদুল আলমকে সঙ্গে নিয়ে বরুড়া উপজেলার দেওড়া গ্রামে নাওমীর ফুফুর বাড়ি যান।সেখান থেকে সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তারা নাওমীকে তুলে নিয়ে যায় এবং তার মামা ও চাচাকে ছেড়ে দেয়।বিএনপি নেতা আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর মেয়ের সাথে নাওমী লন্ডনে লেখাপড়া করতো।সেই সুবাদে খসরু পরিবারের সঙ্গে তাদের পারিবারিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 25 বার