August 5, 2018 7:16 pm A- A A+

শিক্ষার্থীদের মধ্যে চাপাতি হাতে তরুণ

বানী ডেস্কঃ

নিরাপদ সড়কের দাবিতে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের সড়কে অবস্থান,লাইসেন্স ও কাগজপত্র পরীক্ষার চিত্রটা হঠাৎ পাল্টে গেল।গুজব,সংঘর্ষ,হেলমেটধারী যুবকদের আবির্ভাবের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের জমায়েতেও দেখা গেছে অস্ত্র।রবিবার দুপুরের পর সায়েন্স ল্যাবরেটরি এলাকায় হেলমেট পরা যুবকদের সঙ্গে স্কুল ড্রেস পরা তরুণ,যুবকদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়।এর মধ্যে হেলমেটধারীদের বিপরীত দিকে থাকা জমায়েতে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পোশাক পরা এর তরুণকে দেখা যায়,যার হাতে ছিল বড়সড় একটি চাপাতি।ছেলেটি ধাওয়া খেয়ে দৌড়ে আসছিল তাদের অবস্থানের দিকে।এ সময়ই তার হাতে চাপাতিটা দেখা যায়।তবে দৌড়ে জমায়েতের দিকে আসতে আসতে তার ব্যাগে চাপাতিটি ঢুকিয়ে ফেলতে দেখা যায় তাকে।ছেলেটি কে,আদৌ কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র কি না,সেটি শনাক্ত করা যায়নি।তবে শিক্ষার্থী হিসেবে যে জমায়েত ছিল,সেখানেই অবস্থান ছিল তার।২৯ জুলাই ঢাকার বিমানবন্দর সড়কে বাস চাপায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পরদিন থেকে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা সড়কে অবস্থান নিয়ে যান চলাচল বন্ধ করে দিয়ে দাবি জানাতে থাকে।শুরুতে বিমানবন্দর সড়কে এমইএইচ এলাকায় অবস্থান থাকলেও পরে তা উত্তরা,ফার্মগেট,শাহবাগ,মিরপুর,মিরপুর রোডে ছড়ায়।শিক্ষার্থীরা টানা অবস্থান ছেড়ে যখন ফিরতে রাজি হচ্ছে না,তখনই এখানে অন্য পক্ষের সুযোগ নেয়ার খবর আসতে থাকে।বছরের শেষ বেলায় এসে স্কুল পোশাক এমনকি পুরনো পোশাক বিক্রি হয় এমন দোকানে অস্বাভাবিক চাহিদার খবরটি ছিল সন্দেহজনক।এর মধ্যে আবার পরিচয়পত্র তৈরির দোকানেও বাড়তি চাহিদার খবর আসে।তবে শনিবার জিগাতলায় দিনভর সংঘর্ষের পর ছাত্রদের প্রতিনিধি দলের আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয় ঘুরে আসার পর পরিস্থিতি শান্ত হয়।ছাত্ররাই জানায় ওসব ছিল গুজব।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 23 বার