August 26, 2018 5:45 pm A- A A+

শিক্ষকের পা কেটে দেয়ার ঘটনায় গ্রেফতার চার জনকে আদালতে প্রেরন

বানী ডেস্কঃ

শিক্ষক শাহআলম হাওলাদার ওরফে শাহআলম মাস্টারের গোড়ালি পর্যন্ত পা কেটে ফেলাসহ বেধড়ক কুপিয়ে গুরুতর জখমের ঘটনায় কলাপাড়া থানায় শনিবার রাতে একটি মামলা হয়েছে।মামলায় মোঃ সাঈদকে প্রধান আসামি করে মোট ২১ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে আরও ২৫-৩০ জনকে।আহতের ভাই জাহাঙ্গীর হোসেন মামলাটি করেছেন।পুলিশ এ ঘটনায় শনিবার দুপুরে মোট পাঁচ জনকে গ্রেফতার করে।এর মধ্যে সম্পৃক্ততা না থাকায় একজনকে ছেড়ে দিয়েছে।বাকি চারজন সাঈদ,রহিম খোকন,তাইফুর ও হোসাইনকে রবিবার আদালতে প্রেরণ করে পাঁচদিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে।মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই বিপ্লব ও কলাপাড়া থানার ওসি মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।ওসি আরও জানান,বাকি আসামিদের গ্রেফতারে তাদের অভিযান চলছে।আহত শাহআলম মাস্টারকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রবিবার ঢাকায় নেয়া হয়েছে।উল্লেখ্য,পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের পূর্ব মোস্তফাপুর গ্রামে দরবেশ বাড়ির সামনের সড়কে শনিবার সকাল ১০টায় শাহআলম মাস্টারকে বেধড়ক কুপিয়ে জখম করা হয়।বরিশাল শেরে বাংলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শাহ আলম হাওলাদার শিশু ছেলে আফ্রিদিকে নিয়ে পূর্ব মোস্তফাপুর গ্রামে বোন জামাই মকবুল মাস্টারের বাড়িতে কোরবানির দাওয়াত খেতে যায়।সেখান থেকে ফেরার পথে আগে থেকে ওৎপেতে থাকা সশস্ত্র সন্ত্রাসী অতির্কিত হামলা চালায়।সন্ত্রাসীরা তার শিশুসন্তানের সামনে বাম পায়ের গোড়ালির উপর দিয়ে কেটে ঝুলিয়ে দেয়।বেধড়ক কুপিয়ে জখম করে তাকে।

সংবাদটি পড়া হয়েছে মোট 27 বার