রবিবার, ১৭ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং, রাত ৪:২৬

চার-ছক্কার ঝড়ে চিটাগংয়ের জয়, ম্যাচসেরা মুশফিক

চার-ছক্কার ঝড়ে চিটাগংয়ের জয়, ম্যাচসেরা মুশফিক

dynamic-sidebar

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ষষ্ঠ আসরে সপ্তম দিনের দ্বিতীয় খেলায় মুখোমুখি হয় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও চিটাগং ভাইকিংস । চিটাগংয়ের অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম একাই ব্যাটে ছুটিয়েছেন রানের ফোঁয়ারা। চার-ছক্কা জোয়ারে ম্যাচের জন নিশ্চিত করেছেন তিনি। মিরপুরে ৭৫ রানের বিষ্ফোরক ইনিংস খেলেন মুশফিক। তার ইনিংসে ছিল সাতটি চার ও চারটি ছক্কা। ম্যাচসেরাও হয়েছেন তিনি।

মুশফিক অল্পের জন্য দলকে জয়ী করে মাঠ ছাড়তে পারেননি । তিনি যখন আউট হন তখন জয়ের জন্য চিটাগংয়ের দরকার ছিল ৭ রান। তবে ফ্রাইলিংক ছিলেন। তুলির শেষ আঁচড় দিয়েছেন চিটাগংয়ের আফ্রিকান এই অলরাউন্ডার। শেষ ৩ বলে ৫ রান দরকার ছিল। ডসনের করা ২০তম ওভারের চতুর্থ বলে মিডউইকেটের উপর দিয়ে বিশাল ছক্কা হাঁকান ফ্রাইলিংক। ২ বল বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে (১৮৬/৬) নোঙর ফেলে চিটাগং। কুমিল্লার বিপক্ষে রবিবারের রোমাঞ্চকর ম্যাচটি মুশফিকের চিটাগং জিতে নিয়েছেন ৪ উইকেটে। দলকে ভালো সূচনা এনে দেন দুই ওপেনার শেহজাদ ও ক্যামেরন ডেলপোর্ট। উদ্ধোধনী জুটিতে তারা তোলেন ৫৮ রান। ডেলপোর্টকে (১৩) ফেরান সাইফউদ্দিন। পেরেরার বলে সাজঘরে ফেরেন ইয়াসির আলি। শেহজাদকে (৪৬) ফেরান আফ্রিদি। ৭০ রানে ৩ উইকেট হারায় চিটাগং। চতুর্থ উইকেটে মুশফিক-জাদরান তোলেন ৪৭ রান। মেহেদী হাসান ফেরান জাদরানকে। এরপর মোসাদ্দেকনে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন মুশফিক। পঞ্চম উইকেটে তারা তোলেন ৪৪ রান । মোসাদ্দেক ব্যক্তিগত ১২ রানে আউট হলে ক্রিজে আসেন ফ্রাইলিংক (৫ বলে ৯* রান)। সাইফউদ্দিন ৩ উইকেট পান।

ক্রিস গেইল এখনো ব্যাটে ঝড় তুলতে পারেননি সেভাবে। তবে কুমিল্লার লঙ্কান অলরাউন্ডার রবিবার রীতিমতো তান্ডব চালিয়েছেন। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে চার-ছক্কার ফোয়ার ছোঁটান এই ব্যাটসম্যান। মাত্র ২০ বলে ফিফটি করেন তিনি। তার স্ট্রাইকরেট কত জানেন? ২৮৪.৬১।

আটে নেমে চিটাগং ভাইকিংসের সাউথ আফ্রিকান অলরাউন্ডার রবার্ট ফ্রাইলিংকের উপর স্টিমরোলার চালান পেরেরা। ১৯তম ওভারে বোলিং করতে আসেন এই পেসার। পেরেরা (২, ৬, ৬, ৪, ৬, ৬) চার ছক্কা ও এক চারের সাহায্যে ৩০ রান তোলেন। তার ব্যাটিং তান্ডবে বিপিএলও প্রথমবার দেখল ১ ওভারে ৩০ রান! টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা কুমিল্লা ৫ উইকেটে ১৮৪ রান করে। আট নম্বরে নেমে ৭৪* রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন পেরেরা। ২০ বলে ফিফটি করেন তিনি। তার ২৬ বলের ইনিংসটি সাঁজানো ছিল তিনটি চার ও আটটি ছক্কায়। ষষ্ঠ উইকেটে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের সঙ্গে ৯৮ রানের জুটি গড়েন পেরেরা। আর তাতেই বড় পুঁজি পায় কুমিল্লা। চিটাগংয়ের হয়ে খালেদ আহমেদ ৩৪ রানে ৩ উইকেট পান।

কুমিল্লা একাদশ: তামিম, লুইস, বিজয়, ইমরুল, ডসন, আফ্রিদি, সাউফউদ্দিন, পেরেরা, আবু হায়দার, জিয়াউর রহমান, মেহেদী হাসান।

চিটাগং একাদশ: শেহজাদ, ডেলপোট, ইয়াসির আলি, মুশফিক, জাদরান, মোসাদ্দেক, নাঈম হাসান, রাহী, খালেদ, সানজামুল, ফ্রাইলিংক।

0Shares

Count currently

  • 35695Visitors currently online:

Counter Total

Facebook Pagelike Widget

Desing & Developed BY EngineerBD.Net

error: Content is protected !!