মঙ্গলবার, ২৬শে মার্চ, ২০১৯ ইং, সকাল ৬:৩৫

ডিএসইএক্স ঘুরে দাড়িয়েছে মৃদু সংশোধনেই

ডিএসইএক্স ঘুরে দাড়িয়েছে মৃদু সংশোধনেই

dynamic-sidebar

পুঁজিবাজার ডেস্ক : নতুন সরকারের নতুন মন্ত্রিসভা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন এগিয়ে নিতে কার্যকর ভূমিকা রাখবে বলে আশা করছেন সবাই। ব্যবসা-বাণিজ্যেও গতিশীলতার আশা বাড়ছে। এদিকে বহু প্রতিকূলতার মধ্যেও বছর শেষে বেশির ভাগ ব্যাংক কোম্পানির পরিচালন মুনাফা বাড়ার খবর এসেছে। নির্বাচনপূর্ব বছরের অনিশ্চয়তার বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসছেন বিনিয়োগকারীরাও। দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জের সূচক ও লেনদেনে এসবের প্রতিফলন স্পষ্ট। ২০১৮ সালে ১৩ দশমিক ৮৯ শতাংশ কমার পর নতুন বছরের প্রথম ছয় কার্যদিবসেই ৭ দশমিক ২ শতাংশ বেড়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক ডিএসইএক্স। একদিন মৃদু সংশোধনের পর গতকাল ২ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ বেড়ে ৮ মাসের সর্বোচ্চে উন্নীত হয়েছে সূচকটি। লেনদেন হয়েছে হাজার কোটি টাকার সিকিউরিটিজ।

বাজার পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবসে গতকাল লেনদেনের শুরু থেকে শেষভাগ পর্যন্ত ক্রয়াদেশের প্রাধান্য ছিল। বড় মূলধনি সব খাতের শেয়ারদর বৃদ্ধিতে ডিএসইর ব্রড ইনডেক্স ১১৫ দশমিক ৫৯ পয়েন্ট বা ২ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ বেড়ে ৫ হাজার ৭৭০ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে, যা ২০১৮ সালের ৩০ এপ্রিলের পর সর্বোচ্চ। স্টক এক্সচেঞ্জটির ব্লু-চিপ সূচক ডিএস ৩০ আগের দিনের চেয়ে ১ দশমিক ৯০ শতাংশ বেড়ে আবারো ২ হাজার পয়েন্ট ছাড়িয়েছে। ১ দশমিক ৪৪ শতাংশ বেড়েছে শরিয়াহ সূচক ডিএসইএস। দিনশেষে ডিএসইতে ২৩৮টি কোম্পানি, মিউচুয়াল ফান্ড ও করপোরেট বন্ডের দরবৃদ্ধির বিপরীতে কমেছে ৮৫টির এবং অপরিবর্তিত ছিল ২৩টির দর। সোমবার সংশোধন প্রবণতায় ডিএসইর লেনদেন হাজার কোটির নিচে নেমে এলেও গতকাল তা আবারো ১ হাজার ১০ কোটি টাকা ছাড়ায়।

দেশের আরেক শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসআই ছাড়া সবক’টি মূল্যসূচক ২ শতাংশের বেশি বেড়েছে। নির্বাচিত ৫০ কোম্পানির সূচক সিএসই ৫০ সর্বোচ্চ ২ দশমিক ৬৯ শতাংশ বেড়েছে। ব্রড ইনডেক্স সিএসসিএক্স ২ দশমিক ৩৭ শতাংশ বেড়ে ১০ হাজার ৮৯ পয়েন্ট ছাড়িয়েছে। আগের দিন চট্টগ্রামের বাজারে কেনাবেচা ৪১ কোটির ঘরে থাকলেও গতকাল তা ৮৩ কোটি ৮৪ লাখ টাকা ছাড়িয়েছে।

খাতভিত্তিক চিত্র পর্যালোচনায় দেখা যায়, ডিএসইতে তথ্যপ্রযুক্তি ও কাগজ-মুদ্রণ খাত দর সংশোধন প্রবণতায় ছিল। বাকি সব খাতের কোম্পানিগুলোই দিনশেষে বিনিয়োগকারীদের কম-বেশি রিটার্ন দিয়েছে। সর্বোচ্চ ৫ দশমিক ৫৮ শতাংশ বেড়েছে সেবা-আবাসন খাতের বাজার মূলধন। এরপর যথাক্রমে জীবনবীমা ৫ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ, ব্যাংক ৪ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ, ব্যাংক-বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠান (এনবিএফআই) ৩ দশমিক ১, মিউচুয়াল ফান্ড ২ দশমিক ১৩, টেলিযোগাযোগ ২ দশমিক শূন্য ১ খাতের রিটার্ন ছিল উল্লেখযোগ্য।

0Shares

Count currently

  • 70514Visitors currently online:

Counter Total

Facebook Pagelike Widget

Desing & Developed BY EngineerBD.Net