বৃহস্পতিবার, ২২শে আগস্ট, ২০১৯ ইং, রাত ২:৪৭

স্বরূপকাঠীতে চাকুরির প্রলোভনে দেখিয়ে এক নারীর টাকা আত্মসাৎ ও কুপ্রস্তাব

স্বরূপকাঠীতে চাকুরির প্রলোভনে দেখিয়ে এক নারীর টাকা আত্মসাৎ ও কুপ্রস্তাব

স্বরূপকাঠীতে   চাকুরির প্রলোভনে দেখিয়ে এক নারীর টাকা আত্মসাৎ ও কুপ্রস্তাব

আনোয়ার হোসেন স্বরূপকাঠীঃ 

নেছারাবাদ স্বরুপকাঠীতে চাকুরির প্রলোভন দেখিয়ে প্রদীপ চন্দের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগকারী উপজেলার জলাবাড়ী ইউনিয়নের মাদ্রা গ্রামের সুচনা সিকদার বলেন, কামারকাঠী গ্রামের নিরাঞ্জন চন্দের এর ছেলে প্রদীপ চন্দ আমাকে সরকারি চাকুরি পাইয়ে দেয়ার কথা বলে আমার কাছ থেকে বিভিন্ন সময় ধাপে ধাপে প্রায় চার লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা নেয় এবং বলে তোমার চাকুরি যথা শীঘ্রই হয়ে যাবে। প্রদিপ টাকার জন্য বিভিন্ন সময় আমাকে চাপ প্রয়োগ করিত এবং বলতো টাকা না দিতে পারলে চাকুরী হবেনা যার ফলে আমার জমানো টাকা এবং স্থানীয় বিভিন্ন এনজিওর কাছ থেকে কড়া সুধে টাকা এনে প্রদিপের কাছে দিয়েছি যার কিস্তি এখন পর্যন্ত আমি দিতেছি। চাকুরির জন্য দীর্ঘ সময় প্রতিক্ষার পর আমি প্রদিপের কাছে আমার টাকা ফেরৎ চাইলে আজ কাল দিব বলিয়া ঘুরাইতে থাকে। অভিযোগকারী আরও বলেন, মোবাইল ফোনে আমাকে বিভিন্ন কু-প্রস্তাবের প্রলোভন দিত। আমার টাকা চাওয়াতে আমাকে বিভিন্ন ধরনের হুমকী ও কু-প্রস্তাব দেয় এবং তাহার কু-প্রস্তাবে রাজি না হলে কোন টাকা দিবে না বলিয়া হুমকী দেয়।এমন কি আমার মায়ের কাছ থেকে পঞ্চাশ হাজার টাকা নিয়েছে তার একটা টাকাও দেয়নি।বর্তমানে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমার সংসার ভেঙ্গে যাওয়ার উপক্রম হইয়াছে।

এ বিষয়ে প্রদিপ চন্দ্র বলেন, সুচনার মায়ের কাছে স্বর্ন বন্দক রেখে টাকা আনছিলাম সেই সুবাধে সে বর্তমানে আমার কাছে ১৫ হাজার টাকা পাইতে পারে এবং আমি কখনই তাকে মোবাইল ফোনে কু-প্রস্তাব দেই না। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় ভাবে শালিস বৈঠকের কথা হয়েছে।

0Shares
Categories

Desing & Developed BY EngineerBD.Net